কিভাবে ওয়েবসাইট গুগল র‌্যাংক এ নিয়ে আসবেন

আমাদের মধ্যে যাদের ওয়েবসাইট রয়েছে তারা সকলে চাই নিজের ওয়েবসাই গুগল র‌্যাংক এ নিয়ে আসার জন্য। কারণ ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট বা আর্টিকেল গুলো যদি গুগলের প্রথম পেজে দেখায় তাহালে সাইটে প্রচুর ভিজিটর আসবে। ধীরে ধীরে আপনার ওয়েবসাইট জনপ্রিয়তা লাভ করবে। (গুগল টপ রেংকিং কি)

কিভাবে ওয়েবসাইট গুগল র‌্যাংক এ নিয়ে আসবেন

আজকে এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমি বলব কিভাবে ওয়েবসাইট অনপেইজ এসইও গুগল র‌্যাংক এ নিয়ে আসবেন। আপনি On page seo করার জন্য জন্য নিজের নিয়ম গুলো অনুসারণ করে ওয়েবসাইটে আর্টিকেল পাবলিশ করুন। তাহালে দ্রুত ওয়েবসাইট গুগল র‌্যাংক (google rank) এ চলে আসবে। (google website ranking)


কিভাবে ওয়েবসাইট গুগল র‌্যাংক এ নিয়ে আসবেন


(১) কখনো সফটওয়্যার এর উপর নির্ভর করবেন না ওয়েবসাইট র‌্যাংক করার জন্য। মনে রাখবেন, "কন্টেন্ট ইজ কিং" (content is king)। এজন্য আপনি সব সময় চেষ্টা করবেন ভালো কন্টেন্ট লেখার জন্য। তবে, কিছু সফটওয়্যারের উপর আপনি নির্ভর করতে পারবেন। তবে, সেটা ১৫-২০% আর বাকি ৮০-৮৫% নির্ভর করবেন কন্টেন্ট এর উপর। আর আপনি সফটওয়্যার ব্যবহার করবেন ব্যাকলিংক চেক করার জন্য এবং কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য। সুতারাং আপনাকে সব সময় ভালো মানসম্মত কন্টেন্ট লিখতে হবে।



(২) আপনি যতোই ভালো মানের কন্টেন্ট লিখেন না কেন সেটা কোনো উপকারে আসবে না। যদি আপনার পোষ্ট গুলো প্রপারলি ভাবে অনপেইজ এসইও (On page seo) না করেন। সুতারাং কন্টেন্ট র‌্যাংক এর প্রথম শর্ত হলো অনপেইজ এসইও করা।


অনপেইজ এসইও এর কাজ সমূহ-


H1, H2, H3, H4 ট্যাগ গুলো সঠিক ভাবে ব্যবহার করা। সাথে সাথে কিওয়ার্ড ও সঠিক ব্যবহার করা।


আপনাকে ইমেজ অপটিমাইজ করতে হবে। সাথে অলটার ট্যাগ বা ট্যাক্স ব্যবহার করতে হবে।


পোষ্টের টাইটেলে এবং পোষ্টের মধ্যে আপনার রিসার্চ করা টার্গেট কিওয়ার্ড বসাতে হবে।


পোষ্টের মেটা ডেস্ক্রিপশনে কিওয়ার্ড বসাতে হবে।


পোষ্টের সকল কমেন্ট গুলো এপরুভ করে দিবেন।


(৩) আপনার পোষ্ট গুলো সব সময় বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়াতে শোয়ার করুন। কারণ সোশ্যাল মিডিয়া সিগনাল র‌্যাংক এর ক্ষেএে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। আপনার পোষ্ট গুলো যত সোশ্যাল মিডিয়াতে শোয়ার হবে তখন গুগল বুঝবে আপনার কন্টেন্ট গুলো ভালো। আর ঠিক তখনই গুগল আপনাকে র‌্যাংক দিবে।


(৪) আপনার কন্টেন্টের নিচে অবশ্যই সোশ্যাল মিডিয়া শোয়ারিং বাটুন যুক্ত করে দিবেন। যাতে ভিজিটর্সরা আপনার কন্টেন্ট শেয়ার করতে পারে।


(৫) আপনার নতুন পোষ্টের সাথে পুরাতন পোষ্ট ইন্টারনাল লিংক করে দিন। এতে ভিজিটর্সরা যখন আপনার সাইটের নতুন পোষ্ট পড়বে তখন সেটার সাথে পুরাতন পোষ্টটি পড়বে। সাথে সাথে গুগল বুঝবে আপনার কন্টেন্টটি মানসম্মত এবং এই রিলেটেড আপনার কাছে আরো একটি পোষ্ট রয়েছে।


(৬) আপনার পোষ্টে অবশ্যই আউট বাউন্ড লিংক যুক্ত করতে হবে। মানে আপনার পোষ্টের সাথে অন্য জনের পোষ্টের লিংক দিতে হবে। এটা অনেকটা রেফারেন্সের মতো কাজ করবে।


(৭) আপনি কখনো সার্চ ইন্জিনকে টার্গেট করবেন না। সব সময় ভিজিটর্সদের টার্গেট করুন। তাহালে গুগল আপনাকে টার্গেট করে র‌্যাংক দিবে।


(৮) আপনার ওয়েবসাইটের লোডিং স্পিড কমান। কারণ গুগল সব সময় ফাষ্ট ওয়েবসাইট পছন্দ করে। ওয়েবসাইট যত ফাষ্ট হবে ততো গুগল র‌্যাংক দিবে।


(৯) আপনার ওয়েবসাইটের একটি টপ লেভেল ডোমেন প্রয়োজন হবে। যেমন- .com, .in, .info, .org, .co, .me, .net, .xzy এই ধরনের টপ লেভেলের ডোমেন হলো দ্রুত ওয়েবসাইট র‌্যাংক করে।


(১০) আপনাকে সব সময় লং কন্টেন্ট লিখতে হবে। কারণ পোষ্ট র‌্যাংকিং এ আনার জন্য লং কন্টেন্ট বিশেষ ভূমিকা পালন করে। আপনি সব সময় ১০০০ থেকে ২০০০ শব্দের মধ্যে লেখার চেষ্টা করবেন। আর যে বিষয়ে লিখবেন সেই বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে লেখার চেষ্টা করবেন।


এই আর্টিকেল থেকে আমরা জানলাম কিভাবে ওয়েবসাইট গুগল র‌্যাংক এ আনবেন। এর পরবর্তী আর্টিকেলে আমি এডভেন্স এসইও (Advance seo) নিয়ে কথা বলবো। এই আর্টিকেল সম্পর্কে কোনো প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্ট করুন এবং ভালো লাগলে শোয়ার করুন।


Post a Comment

0 Comments